» তালার মাদক সম্রাট অপু-দিপু গ্রেপ্তার হলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে মাদক সম্রাট রাজিব

প্রকাশিত: 06. July. 2020 | Monday

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার তালায় মাদক স¤্রাট অপু-দিপু গ্রেপ্তার হলেও তাদের একান্ত সহযোগী রাজিব দাশ এখনও রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। তারা গ্রেপ্তার হওয়ায় রাজিব দাশ এখন এলাকায় মাদক সরবরাহ করছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। গ্রেপ্তার হওয়া অপু-দিপুর সাথেই রাজিবের ছিলো অবাধ চলাচল। কিন্তু সম্প্রতি পাইকগাছা থানা পুলিশের হাতে অপু-দিপু গ্রেপ্তার হলেও কৌশলে পালিয়ে যায় রাজিব। বর্তমানে অপু-দিপুর মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছে রাজিব।
মাদক সম্রাট রাজিব তালা উপজেলার আটঘরা গ্রামের তপন দাশ নির্বোদ’র ছেলে। তার বিরুদ্ধে উঠতি বয়সের ছেলেদের নিয়ে মাদক সেবনসহ ব্যবসার অভিযোগ রয়েছে এলাকায়। তার অত্যাচারে এলাকার সাধারণ মানুষসহ তার পরিবারও অতিষ্ট। নিজের মা-বাবাকেও মারতে দিধাবোধ করে না মাদকসেবী রাজিব। নিজেকে কখনও চাকুরী জীবি, কখনও ম্যানেজার বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে এলাকায় দাঁপিয়ে বেড়ানো রাজিব এখন বেসামাল হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন সময়ে মোটর সাইকেল যোগে সাতক্ষীরা সীমান্ত থেকে মাদক নিয়ে পাশর্^বর্তী কপিলমুনি এলাকায় বিক্রি করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।
বিশ^স্ত সূত্র জানিয়েছে, কয়েক বছর আগে রাজিব ঢাকার একটি পানের আড়ৎ এ কাজ করতো। সেখান থেকে রাজিব জড়িয়ে একটি মেয়ের সাথে সম্পর্ক করে জড়িয়ে পড়ে মাদক ব্যবসায়। বর্তমান সরকার যখন মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়, রাজিব তখন নিজেকে বাঁচাতে আশ্রয় নেয় ভারতে। কিছু দিন ভারতে থাকার পরে আবারও এলাকায় অপু-দিপুর সাথে মাদক ব্যবসা শুরু করে। সম্প্রতি অপু-দিপুর সাথে মিশে এলাকায় গড়ে তোলে মাদক সিন্ডিকেট। কিন্তু অপু-দিপু গেপ্তার হলেও রাজিব রয়েছে বহালতবিতে।
সূত্রটির ভাষ্যমতে, ২৩ মে অপু-দিপু যখন গ্রেপ্তার হয়, তখন রাজিব ছিলো তাদের সাথেই। কিন্তু পুলিশের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে রাজিব কৌশলে পালিয়ে যায়। বর্তমানে রাজিব একদিন বাড়ি থাকলে দুই দিন থাকছে বিভিন্ন আত্মীয়ের বাড়িতে। এক জায়গায় অবস্থান করছে না রাজিব।
চলতি বছরের ২৩ মে তালা উপজেলার কানাইদিয়া এলাকার অপু রায়হান (৩০) ও দিপু রায়হান (২০) গ্রেপ্তার হওয়ায় তালা উপজেলার কানাইদিয়া, রথখোলা, কৃষ্ণকাটি ও আটঘরা এলাকার মানুষের মাঝে কিছুটা স্বস্তি ফিরলেও তাদের একান্তু সহযোগী রাজিব দাশ বহালতবিয়াতে থাকায় অনেকে আতংকে তটস্থ হয়ে পড়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের চোখ রাঙানি আর বখাটে মাদকাসক্তদের উৎপাতে অতিষ্ট এলাকাবাসী অনেকদিন পর কিছুটা মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস নিতে পারলেও রাজিব দাশের কারণে আবারও এলাকায় মাদক সেবিদের পদচারণা বেড়ে গেছে।
আটঘরা, কানাইদিয়া এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী অপু-দিপু এবং রাজিব মিলে গড়ে তুলেছিল মাদকের অপ্রতিরোধ্য সিন্ডিকেট। ছোট ছোট মাদক ব্যবসায়ীদের মাদক সাপ্লাই করত তারা। অপু ও রাজিব তাদের ইজি বাইক এবং মোটরসাইকেলে করে সাতক্ষীরার সীমান্ত এলাকা থেকে বিপুল পরিমান মাদক নিয়ে আসত এলাকায়। আর রাজিব তা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে পৌছে দিত। তাদের এ কাজে সহযোগীতা করতে এলাকার মাদকাসক্তদের সাথে নিয়ে গড়ে তুলেছিল মাদকের আখড়া। পুলিশের সন্দেহ এড়াতে কোমলমতি শিশুদের কাজে লাগাতেও পিছপা হয়নি তারা।
উল্লেখ্য, গত ২৩ মে তালার উপজেলার সীমানা পাইকগাছার কপিলমুনি ফাঁড়ি পুলিশ এসআই অভিজিত রায় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কপিলমুনি কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে ৪ বোতল ফেন্সিডিল, ১ শ’গ্রাম গাঁজা ও ৫০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে। এব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধে পাইকগাছা থানায় একটি মামলা হয়েছে। যার নং-২৩। তাং-২৩/০৫/২০।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মেহেদী রাসেল জানান, এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলমান আছে। মাদকসেবী বা ব্যবসীদের কোনো ছাড় হবে না।

Share Button

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩২ বার

Share Button